গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে কোথায় থেকে শুরু করবেন?

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে কোথায় থেকে শুরু করবেন?
 

ফ্রিল্যন্সিং এর মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইন সবচেয়ে বেশি চাহিদা সম্পন্ন পেশা । কোন না কোনদিন সবারই মনে হয় আমি গ্রাফিক্স ডিজাইনার হবো। তবে আর সব কিছুর মতো এর রাস্তাটাও একেবারেও সোজা না । পরিশ্রম করেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে হয়।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কী?

গ্রাফিক্ শব্দটির অর্থ হচ্ছে ড্রইং বা রেখা (আঁকা) আর যদি ডিজাইন শব্দের অর্থ বুঝি তাহলে দাড়ায় নকশা বা পরিকল্পনা। আমরা আরো জানি যে, গ্রাফিক অর্থের নানা অর্থ যেমন চিত্র গ্রাফিক শব্দটি জার্মান শব্দ থেকে এসেছে। আমরা খুব সহজে জানতে চাই যে, চিত্র দ্বারা নকশা তৈরি করাকে বুঝায় গ্রাফিক্স ডিজাইন।

মানুষের কিছু মনের কথা যা না বললে নয়- বেশির ভাগ সময় অনেক লোক এসে বা প্রশ্ন করে আমি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখবো বা বলে ফটোশপ শিখবো নানা প্রশ্ন আসলে কি? গ্রাফিক্স ডিজাইন খুব সহজ কিন্তু এর পিছনে সব সময় ধর্য্য এর একটি বিশেষ সহযোগী অধ্যায় বলে আমি মনে করি কারণ ধৈর্য্য থাকলে গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখা কঠিন।

ডিজাইন করতে কী কী  প্রয়োজন?

এ্যালিমেন্টস (Elements)

ইকুইপমেন্ট (Equipment)

প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার

  1. Adobe Photoshop
  2. Adobe Illustrator
  3. CorelDraw Graphics Suite X5
  4. Adobe In design
  5. Adobe Flash
  6. Corel Paint Shop Photo Pro X3

কম্পিউটারে গ্রাফিক্স দুইটি প্রধান ভাগে বিভক্ত- একটি ভিক্টর গ্রাফিক্স এবং অপরটি রাস্টার বা Pixel গ্রাফিক্স ।ইলাস্ট্রেটর এর যে কোন Artwork ই হচ্ছে Vector গ্রাফিক্স। অপরদিকে Photoshop এর সমস্ত ইমেজই Raster বা Pixel গ্রাফিক্স। অবশ্য ইলাস্ট্রেটরের Vector nগ্রাফিক্সকে কমান্ডের মাধ্যমে (Object>Resterize) Raster বা Pixel করে নেওয়া যায়। Vector গ্রাফিক্স Line এবং Curve এর সমন্বয়েএক ধরনের জ্যামিতিক Object দিয়ে তৈরি হয়, যাকে বলে Vector । অপরদিকে Raster গ্রাফিক্স চারকোনা টাইলস এর মত শেপের Pixel দিয়ে তৈরি হয়। Raster ইমেজের সবচেয়ে বড় অসুবিধা হচ্ছে এতে নির্দিষ্ট সংখ্যক Pixel থাকে। ইমেজটি ফেটে যায়। যখন Vector  গ্রাফিক্সকে বড় করা হয় তখন অবজেক্টগুলও পরিবর্তন হয়, ফলে ইমেজ গুলো ফাটে না। বিভিন্ন ধরনের অলংকরণ। text, Logo, গ্রাফিক্সের অনেক কাজে লাগে এবং এটি বহুল ব্যবহৃত হয়।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে যে অফশন গুলো আগে জানতে হবে-

  • টুলবক্সের যাবতীয় টুল গুলোর কাজ পুংখানু পুংখানু ভাবে শিখতে হবে।
  • বিভিন্ন ধরনের প্যালেট গুলোর ব্যবহার জানতে হবে।
  • কাস্টমাইজড ইলাস্ট্রেটর সর্ম্পকে
  • ডকুমেন্ট সেটআপ
  • ফ্রিফারেন্স সেট করা
  • ফন্ট সর্ম্পকে
  • ফিল্টারিং
  • কালার ম্যানেজমেন্ট
  • সাইজ
  • ফরমেট
  • রেজলুশন
  • ফোরগ্রাউন্ড
  • ব্যাকগ্রউন্ড

মূলত ডিজাইন জিনিসটা এক দিনে শেখার বিষয় না । এর পেছনে নিজের প্রতিভা কাজে লাগাতে হবে পাশাপাশি টুলস এর ব্যবহারও জানতে হবে।

আরো পড়ুনঃকোনটা নিবেন? ডেস্কটপ নাকি ল্যাপটপ!

 

Facebook Comments
পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন: