Home » গুগল ও ফেসবুককে জরিমানা করেছে রাশিয়া!
গুগল ও ফেসবুককে জরিমানা করেছে রাশিয়া!

গুগল ও ফেসবুককে জরিমানা করেছে রাশিয়া!

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর একটি আদালত গত শুক্রবার [২৪ ডিসেম্বর] গুগল কে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ডলার ও ফেসবুককে [মূলত প্যারেন্ট কোম্পানি মেটাকে] ২৭ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে। স্থানীয় আইন দ্বারা নিষিদ্ধ বা ব্যানড কন্টেন্ট তাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে মুছে ফেলতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে এই জরিমানা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে টেক জায়ান্টদের ওপর রাশিয়ার চাপ বাড়ানো অব্যাহত থাকছে।

গুগল ও ফেসবুককে জরিমানা

মস্কোর ট্যাগানস্কাই জেলা আদালত রায় দিয়েছে যে, গুগলকে বারবার ব্যানড কন্টেন্ট রিমুভ করতে নির্দেশ দেওয়া হলেও, তারা তা করতে অবহেলা করেছে! এর ফলশ্রুতিতে গুগলকে প্রায় ৭.২ বিলিয়ন রুবল [রাশিয়ার মুদ্রা] যা ডলারে প্রায় ১০০ মিলিয়ন; প্রশাসনিক জরিমানা প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে গুগল জানিয়েছে যে, তারা পরবর্তী পদক্ষেপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আদালতের রায়টি বিবেচনা করবে।

⏩ আরও পড়ুন: ‘উইমেন লিডার্স ও উইমেন পিস ক্যাফে’র উদ্যোগে ‘সামাজিক বিজ্ঞান গবেষণা পদ্ধতি’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত!

এরপরে, একই আদালত একই ইস্যুতে অর্থাৎ ব্যানড কন্টেন্ট সরাতে ব্যর্থতার কারণে জনপ্রিয় স্যোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুকের প্যারেন্ট কোম্পানি মেটাকে প্রায় ২ বিলিয়ন রুবল যা ডলারে প্রায় ২৭ মিলিয়ন, এই অংকের অর্থ জরিমানা করেছে।

রাশিয়ান আদালতগুলি এর আগে চলতি বছর- গুগল, ফেসবুক এবং টুইটারকে ছোটো জরিমানা আরোপ করেছিল। কিন্তু এবার, প্রথমবারের মতো কোম্পানিগুলোর রেভেনিউ বিবেচনা করে জরিমানার পরিমাণ নির্ধারণ হয়েছে।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় যোগাযোগের ওপর নজরদারি সংস্থা Roskomnadzor জানিয়েছে- গুগল এবং মেটা [ফেসবুক] বিশেষভাবে উগ্রপন্থী মতাদর্শ প্রচার করে, ধর্মীয় বিশ্বাসের অবমাননা করে এবং অপ্রাপ্তবয়স্কদের দ্বারা বিপজ্জনক আচরণকে উৎসাহিত করে।

সংস্থাটি আরও জানিয়েছে যে, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম আদালতের আদেশ সত্ত্বেও ২০০০টি এমন ব্যানড / নিষিদ্ধ কন্টেন্ট সরাতে ব্যর্থ হয়েছে। অন্যদিকে গুগল এধরনের ২৬০০টি ব্যানড / নিষিদ্ধ কন্টেন্ট সরাতে ব্যর্থ হয়েছে।

এ ছাড়া তারা আরও সতর্ক করে জানিয়েছে যে, নিষিদ্ধ কন্টেন্ট মুছে ফেলতে ব্যর্থতার জন্য গুগল ও ফেসবুকের আরও রেভেনিউ-ভিত্তিক জরিমানা হতে পারে।

⏩ আরও পড়ুন: মোবাইল আবিষ্কারের ইতিহাস: প্রথম মোবাইল ফোন আবিষ্কার করেন কে?

রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ মাদকের অপব্যবহার, অস্ত্র ও বিস্ফোরক এবং চরমপন্থী দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কিত কন্টেন্ট রিমুভ করতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ এনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্ল্যাটফর্মগুলিকে ক্রমাগতভাবে চাপ দিয়ে যাচ্ছে এবং তা আরও বাড়াচ্ছে।

এই বছরের শুরুতে, কারাগারে বন্দী ক্রেমলিন সমালোচক আলেক্সি নাভালনির সমর্থনে বিক্ষোভ সম্পর্কিত ব্যানড কন্টেন্টগুলো মুছে না দেওয়ায়, রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ প্রযুক্তি সংস্থাগুলির কঠোর সমালোচনা করেছিল।

রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ, বিদেশি টেক জায়ান্টদের রাশিয়ার সার্ভারে রাশিয়ান নাগরিকদের ব্যক্তিগত ডেটা সংরক্ষণ করার জন্য দাবি জানিয়েছে। তারা এটি করতে ব্যর্থ হলে, আরও জরিমানা বা সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার হুমকিও দেওয়া হয়েছে।

রাশিয়ান পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের তথ্য নীতি সংক্রান্ত কমিটির প্রধান আলেকজান্ডার খিনশটাইন বলেছেন, এরকম বিশাল অংকের জরিমানা সমস্ত টেক জায়ান্ট কোম্পানিগুলোর কাছে রাশিয়ার পক্ষ থেকে স্পষ্ট বার্তা পাঠাবে।

⏩ আরও পড়ুন: রবীন্দ্রনাথের উপন্যাস মনে রাখার গোপন কৌশল!

তিনি আরও যোগ করেছেন যে, টেক কোম্পানিগুলো রাশিয়ান আইন ও আদালতের আদেশগুলি মেনে চলতে ব্যর্থ হলে, ট্রাফিক স্লো ডাউন করা কিংবা সম্পূর্ণ ব্লক পর্যন্ত করা হতে পারে।

যাই হোক, ২০২১ সালের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে গুগল ও ফেসবুককে [মেটা] বড়ো-সড়ো একটা ধাক্কা খেতে হলো। তারা এই বিশাল অংকের জরিমানা এবং সেটার প্রভাব কীভাবে মোবাবিলা করে, সেটাই দেখার বিষয়! অবশ্য তাদের ব্যবসার ক্ষেত্রে এসব নতুন কিছু নয় বটে!

তথ্যসূত্র: ABC News
পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

মন্তব্য করুন: